top of page

*#গম্ভীরালীলায়_মহাপ্রভু !* *(#পর্ব_১২_চলবে)*

*#গম্ভীরালীলায়_মহাপ্রভু !*

*(#পর্ব_১২_চলবে)*



*#শ্রীজয়দেব_গোস্বামী_ও_তাঁর___রচিত_শ্রীগীতগোবিন্দ।*


"#স্বরলগরলখণ্ডনং_মম_শিরসি__মণ্ডনং ৷ দেহি পদপল্লবমুদারং॥

জ্বলতি ময়ি দারুণো মদনকদনানলো ৷ হরতৃ তদুপাহিতবিকারং॥" ৭॥

#অর্থাৎ_হে_প্রিয় !

তোমার রমণীয় পদবল্লব ভূষণস্বরূপ অামার মস্তকে অর্পণ কর , তাহাতে কেবল অামার মস্তকের শোভা হইবে এমত নহে ;

যে অনঙ্গরূপ গরল অামাকে জর্জরিত করিতেছে তাহারও খণ্ডন হইবে ; দেখ মদনয়াতনারূপ নিদারুণ অনল অামাকে দহন করিতেছে , তোমার চরণস্পর্শ সেই দাহজনিত বিকার দূর করুক॥৭॥


#বৈষ্ণব_কবি_শিরোমনি শ্রীজয়দেব গোস্বামীই শ্রীরাধাকৃষ্ণের অপ্রাকৃত প্রেমলীলার বলতে গেলে আদি স্রষ্টা ৷ তাঁর রচিত শ্রীগীতগোবিন্দ সমগ্র বৈষ্ণব জগতে অদ্বিতীয় ও অতুলনীয় সম্পদ ৷ মনে হয় কোন বৈষ্ণব কবিই শ্রীজয়দেব গোস্বামীর সৃষ্ট প্রভাবকে অতিক্রম করতে পারে নাই ৷

#শ্রীজয়দেব গোস্বামী গীতগোবিন্দে যে মানময়ী শ্রীরাধাঠাকুরাণীর মানপ্রশমনের জন্য শ্রীরাধার শ্রীচরণে শ্রীকৃষ্ণকে সমর্পন করাতে কুণ্ঠিত হয়ে"—#স্মরগরলখণ্ডনং_মম___শিরসিমণ্ডনং"'-পর্যন্ত রচনা করে তা অসমাপ্ত রেখে ইতস্ততঃ করতে করতে গঙ্গাস্নানে চলে যান ৷ সেই সময় স্বয়ং শ্রীকৃষ্ণই এসে শ্রীগোস্বামীর জায়া পদ্মাবতীর কাছ থেকে সেই অসমাপ্ত গ্রন্থখানি নিয়ে এই অসম্পূর্ণ শ্লোকটির পাশে— #দেহি_পদপল্লবমুদারং"—কথাটি

লিখে শ্লোকটি সম্পূর্ণ করে দেন ৷

#যিনি_স্বয়ং

মানময়ী শ্রীরাধার মান প্রশমনের জন্য তাঁর শ্রীচরণে পতিত হতে বিন্দুমাত্র কুণ্ঠিত হন নাই , #রাধাভাবে বিভাবিত স্বয়ং তিনিই যে তাঁর গম্ভীরা লীলায় সেই শ্রীগীতগোবিন্দের রসামৃত আস্বাদনে আত্মহারা থাকতেন, তাতে আর বিস্ময়ের কি থাকতে পারে ?

#শ্রীজয়দেব_গোস্বামী রচিত শ্রীগীতগোবিন্দম্ মনে হয় উচ্চ অধিকারী ব্যতীত সুবিখ্যাত রসকাব্য শ্রীগীতগোবিন্দের উচ্চতম ভাব হৃদয়ঙ্গম করা বড়ই সুকঠিন ৷ একমাত্র রাগমার্গীয় শুদ্ধ ভক্তেরই আস্বাদনের অধিকার ৷ বিষয়াসক্ত বহির্মুখ-চিত্ত সম্পন্ন জীবের অপ্রাকৃত ব্রজরস আস্বাদনের অধিকার কোথায় ?

গম্ভীরালীলাতেই তা বিশেষভাবে লক্ষণীয়—"#লীলাধীশ_মহাপ্রভু,

রামানন্দ রায় এবং স্বরূপ দামোদর এই যে দু'জনকে নিয়ে গম্ভীরায় ব্রজরস আস্বাদন করতেন তাতে কাম বা প্রাকৃত জগতের কোন ভাবই এঁদেরকে স্পর্শ করতে পারেনি ৷"'

"'#গম্ভীরালীলায়_মহাপ্রভুশ্রীরাধাভাবে_ভাবিত_হয়ে_যে_যে_রসাপ্লুত_ভাবে_লীলায়িত_হতেন_তা_

*#সুন্দরভাবে_লিপিবদ্ধ_থাকায়_এই_গ্রন্থগুলি_মহাপ্রভুর_নিকট_এত_আদরের_হয়ে_উঠেছিল ৷*


#রামানন্দ_রায়_এবং__স্বরূপ__দামোদর_শ্রীরাধাভাবের_সুরসিক_ভাবুক_এবং_বক্তা_ছিলেন ৷


*#তাই_মহাপ্রভুর_সঙ্গে_এঁদের_মিলন_এক_অভিনব_ভাগীরথী_ধারা_সৃষ্টি_করে_সমস্ত_জগৎকে___এখনও_পবিত্র_করে_চলেছে ৷"'* * * *

"'(#জয়_শ্রীগৌরহরি)!"'

*#গম্ভীরালীলায়_মহাপ্রভু !*

*(#পর্ব_১২_চলবে)*



*#শ্রীজয়দেব_গোস্বামী_ও_তাঁর___রচিত_শ্রীগীতগোবিন্দ।*


"#স্বরলগরলখণ্ডনং_মম_শিরসি__মণ্ডনং ৷ দেহি পদপল্লবমুদারং॥

জ্বলতি ময়ি দারুণো মদনকদনানলো ৷ হরতৃ তদুপাহিতবিকারং॥" ৭॥

#অর্থাৎ_হে_প্রিয় !

তোমার রমণীয় পদবল্লব ভূষণস্বরূপ অামার মস্তকে অর্পণ কর , তাহাতে কেবল অামার মস্তকের শোভা হইবে এমত নহে ;

যে অনঙ্গরূপ গরল অামাকে জর্জরিত করিতেছে তাহারও খণ্ডন হইবে ; দেখ মদনয়াতনারূপ নিদারুণ অনল অামাকে দহন করিতেছে , তোমার চরণস্পর্শ সেই দাহজনিত বিকার দূর করুক॥৭॥


#বৈষ্ণব_কবি_শিরোমনি শ্রীজয়দেব গোস্বামীই শ্রীরাধাকৃষ্ণের অপ্রাকৃত প্রেমলীলার বলতে গেলে আদি স্রষ্টা ৷ তাঁর রচিত শ্রীগীতগোবিন্দ সমগ্র বৈষ্ণব জগতে অদ্বিতীয় ও অতুলনীয় সম্পদ ৷ মনে হয় কোন বৈষ্ণব কবিই শ্রীজয়দেব গোস্বামীর সৃষ্ট প্রভাবকে অতিক্রম করতে পারে নাই ৷

#শ্রীজয়দেব গোস্বামী গীতগোবিন্দে যে মানময়ী শ্রীরাধাঠাকুরাণীর মানপ্রশমনের জন্য শ্রীরাধার শ্রীচরণে শ্রীকৃষ্ণকে সমর্পন করাতে কুণ্ঠিত হয়ে"—#স্মরগরলখণ্ডনং_মম___শিরসিমণ্ডনং"'-পর্যন্ত রচনা করে তা অসমাপ্ত রেখে ইতস্ততঃ করতে করতে গঙ্গাস্নানে চলে যান ৷ সেই সময় স্বয়ং শ্রীকৃষ্ণই এসে শ্রীগোস্বামীর জায়া পদ্মাবতীর কাছ থেকে সেই অসমাপ্ত গ্রন্থখানি নিয়ে এই অসম্পূর্ণ শ্লোকটির পাশে— #দেহি_পদপল্লবমুদারং"—কথাটি

লিখে শ্লোকটি সম্পূর্ণ করে দেন ৷

#যিনি_স্বয়ং

মানময়ী শ্রীরাধার মান প্রশমনের জন্য তাঁর শ্রীচরণে পতিত হতে বিন্দুমাত্র কুণ্ঠিত হন নাই , #রাধাভাবে বিভাবিত স্বয়ং তিনিই যে তাঁর গম্ভীরা লীলায় সেই শ্রীগীতগোবিন্দের রসামৃত আস্বাদনে আত্মহারা থাকতেন, তাতে আর বিস্ময়ের কি থাকতে পারে ?

#শ্রীজয়দেব_গোস্বামী রচিত শ্রীগীতগোবিন্দম্ মনে হয় উচ্চ অধিকারী ব্যতীত সুবিখ্যাত রসকাব্য শ্রীগীতগোবিন্দের উচ্চতম ভাব হৃদয়ঙ্গম করা বড়ই সুকঠিন ৷ একমাত্র রাগমার্গীয় শুদ্ধ ভক্তেরই আস্বাদনের অধিকার ৷ বিষয়াসক্ত বহির্মুখ-চিত্ত সম্পন্ন জীবের অপ্রাকৃত ব্রজরস আস্বাদনের অধিকার কোথায় ?

গম্ভীরালীলাতেই তা বিশেষভাবে লক্ষণীয়—"#লীলাধীশ_মহাপ্রভু,

রামানন্দ রায় এবং স্বরূপ দামোদর এই যে দু'জনকে নিয়ে গম্ভীরায় ব্রজরস আস্বাদন করতেন তাতে কাম বা প্রাকৃত জগতের কোন ভাবই এঁদেরকে স্পর্শ করতে পারেনি ৷"'

"'#গম্ভীরালীলায়_মহাপ্রভুশ্রীরাধাভাবে_ভাবিত_হয়ে_যে_যে_রসাপ্লুত_ভাবে_লীলায়িত_হতেন_তা_

*#সুন্দরভাবে_লিপিবদ্ধ_থাকায়_এই_গ্রন্থগুলি_মহাপ্রভুর_নিকট_এত_আদরের_হয়ে_উঠেছিল ৷*


#রামানন্দ_রায়_এবং__স্বরূপ__দামোদর_শ্রীরাধাভাবের_সুরসিক_ভাবুক_এবং_বক্তা_ছিলেন ৷


*#তাই_মহাপ্রভুর_সঙ্গে_এঁদের_মিলন_এক_অভিনব_ভাগীরথী_ধারা_সৃষ্টি_করে_সমস্ত_জগৎকে___এখনও_পবিত্র_করে_চলেছে ৷"'* * * *

"'(#জয়_শ্রীগৌরহরি)!"'

4 views0 comments

Comentarios


Be Inspired
bottom of page