top of page

"#ময়নাডালে_মহাপ্রভু !" "(#পর্ব_০৫)" ক্রমশঃ চলিবে ৷

Updated: Nov 24, 2020


"#ময়নাডালে_মহাপ্রভু !"

"(#পর্ব_০৫)" চলবে ৷

#বৈষ্ণব_ধর্ম_প্রচার ও প্রসারের উদ্দেশ্যে শ্রীনরোত্তম ঠাকুর খেতুরিতে(বর্তমানে বাংলাদেশ) যে মহোৎসব করেন , সেই উৎসবে বিভিন্ন স্থান থেকে বৈষ্ণবগণ উপস্থিত হয়েছিলেন ৷ সেই উৎসবে নৃসিংহবল্লভ মিত্র ঠাকুরও যোগ দিয়েছিলেন ৷ খেতুরি উৎসবে-চৈতন্য পূজন,কৃষ্ণ ভজন,কীর্তন মহোৎসব,রাধাবল্লভ,রাধাকান্ত, রাধামাধব,রাধামোহন,রাধা বিনোদ ইত্যাদি বিগ্রহ প্রতিষ্ঠা , চৈতন্যচরিতামৃত পাঠ, নরোত্তম ঠাকুরের দৈনন্দিন জীবন যাত্রার প্রণালী বৈষ্ণব সমাজে প্রচলিত হয়,চারদণ্ড প্রত্যুষে নিদ্রাত্যাগ, গৌরাঙ্গের মঙ্গল অারতি দর্শন,ভজন,তিলক সেবা, স্তব পাঠ, পাঁচবার মন্দির পরিক্রমন, কৃষ্ণকথায় গৌরকথায় নেত্রে জল অার লক্ষবার নাম জপ ইত্যাদি ৷


সেই উৎসবে নরোত্তম ঠাকুর একশত অাটটি তাল বিশিষ্ট ধ্রবপদ কীর্তন প্রচলন করেন এবং মঙ্গল ঠাকুর ও নৃসিংহবল্লভের পঁইতাল্লিশটি তাল বিশিষ্ট মনোহরসাহী কীর্তনের স্বীকৃতি দেওয়া হয় সেখানে ৷ নরোত্তম ঠাকুরের খুব স্নেহধন্য হন নৃসিংহবল্লভ, নৃসিংহবল্লভ সকলকে ময়নাডালে অাসার জন্য অামন্ত্রণ জানান,সেই অামন্ত্রণে সাড়া দিয়ে নরোত্তম ঠাকুর ও শ্রীনিবাস অাচার্য্য ময়নাডালে এসেছিলেন এবং এখান থেকেই তাঁরা বিষ্ণুপুরে যান ৷

"'(( #বাংলার_কীর্তন_গান গ্রন্থে উল্লেখ অাছে—'মনোহরসাই' গান সৃষ্টির ইতিহাস সম্পর্কে বিভিন্ন মত অাছে ৷ প্রথমতঃ ধরা হয় এ গান সৃষ্টি হয়েছে কাটোয়ার নিকটবর্তী অঞ্চলে—শ্রীপাট শ্রীখণ্ড জ্ঞানদাস কাঁন্দরা, জাজীগ্রাম ইত্যাদি এই অঞ্চলের কতিপয় গ্রামকে কেন্দ্র করে ৷ এ অঞ্চলটি 'মনোহরশাহী' নামক পরগণার অন্তর্গত সেজন্যই এ কীর্তনের ধারাকে 'মনোহরসাই' বলে অভিহিত করা হয় ৷ এর মূল স্রষ্টাদের মধ্যে ছিলেন জ্ঞানদাস, রঘুনন্দন অাচার্য, নৃসিংহানন্দ মিত্র ঠাকুর, মঙ্গল ঠাকুর প্রমুখ ব্যাক্তিগণ ৷ এটি খুবই গ্রহণযোগ্য সিদ্ধান্ত কারণ এর ঐতিহাসিক সমর্থন অাছে ৷


#দ্বিতীয়_মতটিতে বলা হয় মনোহরদাস নামক একজন বিখ্যাত পদরচয়িতা এবং গায়ক যে সঙ্গীতধারা প্রবর্তন করেন তারই নাম মনোহরশাহী গান ৷ কিন্তু মনোহরদাসের পদসংখ্যা খুবই অল্প, তা ছাড়া কীর্তনীয়াদের মৌলিক ইতিহাসেও মনোহরদাসের তেমন গায়কী কৃতিত্বের মোটেই উল্লেখ নাই ৷ তাই সেই মনোহরদাস কীর্তনের একটি বিশেষ ধারা প্রবর্তন করেছেন তা খুব সুস্পষ্ট নয় বলেই গ্রহণযোগ্যও নয় ৷

'#মনোহরশাহী' নামটি পুথিগত নাম, গায়ক-বাদকগণ যে নাম বলে থাকেন তা হ'ল 'মনোহরসাই' ৷ এ গানের ধারা একটি নির্দিষ্ট অঞ্চলে গড়ে উঠলেও ক্রমশঃ বর্ধমানের ঐ নির্দিষ্ট অঞ্চল ছাড়া বর্তমান মুর্শিদাবাদ, বীরভূম ইত্যাদি অঞ্চলেও ক্রমশঃ প্রসারলাভ করে ৷ নৃসিংহানন্দ মিত্র ঠাকুর ছিলেন মনোহরসাই গানের একজন প্রবর্তক ৷ (এটি বাংলার কীর্তন গান গ্রন্থের পাতা থেকে তুলে ধরা হল) ))"'



'#মনোহরশাহী' ঘরানায় ময়নাডালের সুর বৈচিত্র-এই সম্বন্ধে স্বনামধন্য কীর্ত্তনীয়া শ্রীমাণিক চাঁদ মিত্র ঠাকুর মহাশয় "সংকীর্তন" পত্রিকার প্রথম সংখ্যায় যেটি লিখেছেন তা পরবর্তী পর্বে তুলে ধরা হবে ৷

#জয়মহাপ্রভু!"

3 views0 comments

Comentarios


Be Inspired
bottom of page